সোমবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২২, ০১:০৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
Logo দিনাজপুর হাকিমপুর হিলি সীমান্তে বিএসএফ আটক করে দুই শিক্ষার্থীকে Logo না ফেরার দেশে চলে গেলেন লোহাগড়া থানার এস আই রফিকুল ইসলাম Logo নাটোরে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সমর্থীত নৌকা প্রতিক নিয়ে উমা চৌধুরী জলি বিজয়ী Logo নান্দাইলের’ শেরপুর ইউনিয়ন প্রবাসী ঐক্য পরিষদ’ এর উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ Logo জয়পুরহাট এক্সক্লুসিভ শো-রুম উদ্বোধন  Logo চাঁপাই নবাবগঞ্জ উপজেলার নারায়নপুর ইউনিয়নের অধিকাংশ রাস্তায় চলছে মাটি ভরাট এর কাজ Logo ইকো’২৪ বছর পেরিয়ে  ২৫ বছর পদার্পণে আলোচনা সভা Logo জয়পুরহাটে অসহায় দরিদ্র নারীদের মাঝে কম্বল বিতরন Logo লোহাগড়ার জয়পুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হোসেন মহত এর মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া  Logo চাঁপাই নবাবগঞ্জে ওয়ার্ড পর্যায়ে কভিত 19 টিকাদান কর্মসূচী শুরু

পরকীয়া ঢাকতে স্ত্রীর হাত-পা ভেঙেই ক্ষান্ত হননি স্বামী, হাসপাতালেও মারধর”

দৈনিক বাংলার আলো ২৪ ডেস্ক / ৭৩ বার পঠিত
আপডেট : সোমবার, ২৬ জুলাই, ২০২১, ৪:২১ অপরাহ্ণ
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত রোকেয়া

চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের চকরিয়ায় পরকীয়া আড়াল করতে স্ত্রীর হাত-পা ভেঙে দিয়েছেন পাষণ্ড স্বামী। এরপরও ক্ষান্ত হননি, হাসপাতালে নেয়ার পর আরেক দফায় হামলা চালান তিনি।

নির্যাতনের শিকার গৃহবধূর নাম রোকেয়া সুলতানা মেরী। উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের নতুনপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত স্বামীর নাম নুরুল হক।

জানা গেছে, ১৮ জুলাই বিকেলে রোকেয়ার ওপর নির্যাতন চালিয়ে হাত-পা ভেঙে দেন স্বামী নুরুল হক ও শাশুড়ি রশিদা বেগম। এরপর তাকে বাড়িতে আটকে রাখেন তারা। চিৎকার শুনে অবশেষে রোকেয়ার বাবার বাড়িতে খবর দেন প্রতিবেশীরা। পরে স্থানীয় চেয়ারম্যান নুরুল আমিনকে সঙ্গে নিয়ে ২৪ জুলাই বোনের শ্বশুরবাড়ি থেকে রোকেয়াকে উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন ভাই সাদেকুর রহমান।

এরপর রোববার রাত সাড়ে ৯টার দিকে হাসপাতালের রোগী কক্ষে ঢুকে পাঁচ-ছয়জন সন্ত্রাসী ভাড়া করে নিয়ে ফের স্ত্রীর ওপর হামলা চালান নুরুল। সেখানে তারা রোকেয়া, তার ভাই-বোনসহ কয়েকজনকে আহত করেছে বলে জানান রোগী ও প্রত্যক্ষদর্শী।

পরে বিষয়টি পুলিশকে জানায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এরপর চকরিয়া থানার এসআই আবু সায়েম ও এএসআই মোশাররফ হোসেনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ হাসপাতালে উপস্থিত হলে হামলাকারীরা পালিয়ে যান।

চার বছর আগে খুটাখালী ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর ফুলছড়ি গ্রামের আবু তালেবের মেয়ে রোকেয়া সুলতানা মেরীর বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে বিভিন্ন সময়ে যৌতুকের জন্য তাকে মারধর করতেন স্বামী নুরুল হক ও শাশুড়ি রশিদা বেগম।

এ ঘটনায় নুরুল হকসহ দুজনের নাম উল্লেখ করেও অজ্ঞাত সাত-আটজনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন রোকেয়ার বড় ভাই মাস্টার বশির আহমদ।

চকরিয়া থানার ওসি (তদন্ত) মো. জুয়েল ইসলাম জানান, ঘটনার বিষয়ে একটি মামলা পেয়েছি। দ্রুত আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

এ জাতীয় আরও খবর পড়ুন
Theme Customized By Bd it Host
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: